সড়ক দুর্ঘটনায় চার জেলায় পাঁচজন নিহত 2

সড়ক দুর্ঘটনায় চার জেলায় পাঁচজন নিহত

ঢাকা, ঝিনাইদহ, নারায়ণগঞ্জ ও মাদারীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় চারজনের মৃত্যু হয়েছে। 

ঢাকা : আদাবরে সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত হয়েছেন। তাদের নামপরিচয় জানা যায়নি। (২৭ অক্টোবর) রবিবার ভোরে আদাবর থানার শ্যামলী সড়ক ও জনপথ অফিস সংলগ্ন রাস্তায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আদাবর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হাবিবুর রহমান জানান,  ভোর ৪টার দিকে আদাবর থানার শ্যামলী সড়ক ও জনপথ অফিস সংলগ্ন রাস্তায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই এক নারী (২৫) ও এক পুরুষের (৫৫) মৃত্যু হয়। তাদের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ঝিনাইদহ : সদর উপজেলায় বাসচাপায় সুমন হোসেন (১২) নামে এক কিশোর নিহত হয়েছে।  (২৮ অক্টোবর) সোমবার সকালে উপজেলার ডাকবাংলো আব্দুর রউফ ডিগ্রি কলেজের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। সুমন ডাকবাংলো এলাকার পোতাহাটি গ্রামের মফিজুল ইসলামের ছেলে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঈন উদ্দিন জানান, প্রতিদিনের ন্যায় সকালে গ্যারেজে কাজ করার জন্য যায় সুমন। এসময় গ্যারেজের পাশে থাকা কুকুর সুমনকে ধাওয়া করলে রাস্তা পার হতে গেলে চুয়াডাঙ্গা থেকে ছেড়ে আসা ঝিনাইদহগামী রয়েল পরিবহনের একটি বাস তাকে চাপা দেয়। এতে সুমন ঘটনাস্থলে তার মারা যান।

এ ঘটনায় বাসটিকে জব্দ করা হয়েছে। চালককে আটকের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।

নারায়ণগঞ্জ : জেলার সিদ্ধিরগঞ্জে মোটরসাইকেল ও কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে হৃদয় (২৭) নামের এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন।

(২৭ অক্টোবর) রবিবার বিকেলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জের সানাড়পাড় এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। হৃদয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর থানার মরিচাকান্দি এলাকার তানসিন মিয়ার ছেলে ও রাইড শেয়ারিং অ্যাপ পাঠাও চালক।

পুলিশ জানায়, হৃদয় তিন বছর যাবত রাইড শেয়ারিং অ্যাপ পাঠাও চালক হিসেবে কাজ করতেন। বিকেল ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সানারপাড় এলাকা অতিক্রম করার সময় মোটরসাইকেল ও কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই হৃদয় মারা যান। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে কাভার্ড ভ্যানসহ চালককে আটক করে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুল ফারুক জানান, ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

মাদারীপুর : জেলার শিবচরে ঢাকাগামী একটি কাভার্ডভ্যান নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের পুকুরে পড়ে ওমর ফারুক (২৮) নামে ওই গাড়ির সহকারীর মৃত্যু হয়েছে।

(২৮ অক্টোবর) সোমবার সকাল ৮টার দিকে উপজেলার কাঁঠালবাড়ী ঘাট সংলগ্ন দোতরা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত ওমর ফারুক খুলনা মেট্রো এলাকার হালিম খানের ছেলে।

জানা যায়, ঢাকার উদ্দেশ্যে খুলনা থেকে ছেড়ে আসা কাভার্ডভ্যানটি সকালে কাঁঠালবাড়ী ঘাট সংলগ্ন ওয়ানওয়ে সড়কে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি পুকুরে পড়ে যায়। তাৎক্ষণিক গাড়িচালক বের হলেও চালকের সহকারী ডুবে যাওয়া গাড়িটির ভেতর আটকা পড়ে। খবর পেয়ে শিবচর ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ও শিবচর থানা পুলিশ উদ্ধার অভিযান শুরু করে। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কাভার্ডভ্যানের ভেতর থেকে ওমর ফারুকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

শিবচর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমির হোসেন সেরনিয়াবাত জানান, নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কাভার্ডভ্যানটি পুকুরের পানিতে ডুবে যায়। খবর পেয়ে পুকুরটি অনেক গভীর থাকায় কাভার্ডভ্যানটি উদ্ধারে সময় বেশি লাগে। গাড়ির ভেতরে আটক পড়ে চালকের সহকারী মারা যায়।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 + eight =