মাগুরায় রেকর্ড পরিমাণ মধু উৎপাদনের আশা 2

মাগুরায় রেকর্ড পরিমাণ মধু উৎপাদনের আশা

মাগুরায় সরিষা ফুলের মধু সংগ্রহে ব্যস্ত সময় পার করছেন মৌয়ালরা। সংগ্রহ করা মধুর চাহিদাও বেশ ভালো। অল্প বিনিয়োগে বেশি লাভ হওয়ায় অনেকে ঝুঁকছেন এ পেশায়। কৃষি বিষয়ক পরামর্শের পাশাপাশি উন্নত প্রশিক্ষণের দাবি জানিয়েছেন তারা।

সরিষা ফুলের হলুদ মাঠ। পাশেই সারি সারি পেতে রাখা হয়েছে মৌমাছির বাক্স। ফুলে ফুলে ঘুরে মধু সংগ্রহ করে মৌমাছিরা। সার্বিক বিষয়ে তদারকি করেন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত মৌয়ালরা। তাদের সহযোগী হিসেবে কাজ করেন কেউ কেউ।

নির্দিষ্ট সময় পর পর বাক্সের চাক থেকে সংগ্রহ করা হয় মধু। স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে চলে যায় দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে। অল্প বিনিয়োগে ভালো লাভ হওয়ায় মৌচাষ করে স্বাবলম্বী হচ্ছেন অনেক বেকার যুবক।

এক যুবক বলেন, আমি বেকার ছিলাম। মৌচাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছি। এলাকার অনেক বেকার যুবকই এখন মৌচাষ করছে। ২০টি বাক্স থেকে বছরে প্রায় লাখ টাকা আয় হয়।

কৃষিবিদ মোহাম্মদ আলী বলেন, অনেক বেকার বা শিক্ষিত যুবকরা চাইলে এটাকে একটি ক্ষুদ্র শিল্প হিসেবে নিতে পারে।

ভুল ভেঙেছে কৃষকের। খেতের পাশে মৌ চাকের বাক্স বসাতে এখন আর বাধা দেয় না কেউ।

মৌয়ালদের প্রশিক্ষণ ও পরামর্শের জন্য কৃষি বিভাগ কাজ করছে বলে জানিয়েছেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা।

এ প্রসঙ্গে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের জাহিদুল আমিন বলেন, আমরা মৌচাষীদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছি। মাস্টার ট্রেইনারও রয়েছে।

কৃষি বিভাগ জানায়, প্রতি মৌসুমে মাগুরায় প্রায় ৩০ থেকে ৩৫ টন মধু উৎপাদন হয়। চলতি মৌসুমে নতুন চাষি যুক্ত হওয়ায় রেকর্ড পরিমাণ মধু উৎপাদন হবে বলে আশা কৃষি বিভাগের।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × one =