আবারও বিতর্কের সৃষ্টি করলেন আলিম দার 2

আবারও বিতর্কের সৃষ্টি করলেন আলিম দার

আবারও বিতর্কের সৃষ্টি করেছেন পাকিস্তানি আম্পায়ার আলিম দার। মেলবোর্ন টেস্টের তৃতীয় দিনে তিনি বিতর্কের সৃষ্টি করেন।

তৃতীয় আম্পায়ারের দায়িত্ব পালনকালে অস্ট্রেলিয়ার রিভিউ’র বিপরীতে ঠিকঠাক সিদ্ধান্ত দিতে পারেননি তিনি।

এর আগেও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বিভিন্ন সময় সিদ্ধান্ত দিয়ে বিতর্কে পড়েছিলেন আলিম দার। ২০১৩ অ্যাশেজে স্টুয়ার্ট ব্রডকে আউট দেননি, পরে ওই টেস্ট হেরেছিল অস্ট্রেলিয়া। মাঠের আম্পায়ারদের ভুল ঠিক করতেই ২০০৮ সালে চালু হয় ডিসিশন রিভিউ পদ্ধতি (ডিআরএস)। তবে শনিবার মেলবোর্ন টেস্টে তৃতীয় দিনে অস্ট্রেলিয়া রিভিউ নেওয়ার পর সঠিক সিদ্ধান্ত দিতে আরও একবার ব্যর্থ হলেন আলিম দার।

বিতর্কটা উঠেছে নিউজিল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে মিচেল স্যান্টনার ব্যাটিংয়ে থাকতে। মিচেল স্টার্কের বাউন্সার সামলাতে না পেরে লেগ গালি অঞ্চলে ট্রাভিস হেডকে ক্যাচ দেন স্যান্টনার। কিন্তু মাঠের আম্পায়ার মারাইস এরাসমাস ক্যাচের আবেদন নাকচ করে দেন। বলটা স্যান্টনারের গ্লাভসে লেগেছে, এ বিশ্বাস থেকে রিভিউ নেয় অস্ট্রেলিয়া। টিভি রিপ্লে দেখেই উদযাপন শুরু করে দেয় অস্ট্রেলিয়া দল। কারণ রিপ্লেতে দেখা যায়, বল স্যান্টনারের ডান গ্লাভসের রিস্টব্যান্ডে লেগেছে। ক্রিকেটের আইন অনুযায়ী এটি আউট। কিন্তু স্নিকো ও হটস্পট দেখে বেশ সময় নিয়েও স্যান্টনারকে আউট দেননি আলিম দার। এরাসমাসের সিদ্ধান্তেই থেকে যান তিনি।

এ ঘটনায় কড়া প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন সাবেক অস্ট্রেলীয় ওপেনার ও ফক্স স্পোর্টসের ধারাভাষ্যকার মার্ক ওয়াহ। টুইটে লিখেছেন, এটি তৃতীয় আম্পায়ারের খুব বাজে সিদ্ধান্ত। বলটা ছুঁয়ে যাওয়ার পর গ্লাভসের ব্যান্ড পরিষ্কার দেখা গেছে। এসব সিদ্ধান্ত দিতেই খেলায় ডিআরএস চালু করা হয়েছে।

আলিম দারের সমালোচনা করেছেন বিশ্বকাপজয়ী সাবেক অজি অধিনায়ক রিকি পন্টিংও। তার কথা, দিনের আলোর মতো পরিষ্কার বিষয়টি আম্পায়ারের চোখে পড়েনি। ঠিকঠাকমতো কিছু করতে না পারলে তা না করাই ভালো।

অবশ্য, আলিম দারের এমন ভুলের বড় মাশুল দিতে হয়নি অস্ট্রেলিয়াকে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × 3 =