শিক্ষার্থীর ওপর হামলা : বাকৃবির দুই সংগঠনের বিক্ষোভ 2

শিক্ষার্থীর ওপর হামলা : বাকৃবির দুই সংগঠনের বিক্ষোভ

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান (বশেমুরবিপ্রবি) বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের উপর পরিকল্পিত হামলার প্রতিবাদে এবং সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিদের অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা।

রবিবার দুপুর ১ টার দিকে বিক্ষোভ মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র থেকে শুরু হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে প্রশাসনিক ভবনের সামনে এসে শেষ হয়।

মিছিল পরবর্তী বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বায়ত্ত্বশাসন খর্ব করা, শিক্ষার্থীদের মত প্রকাশের অধিকারে বাঁধা দেওয়া ও অন্যায়ভাবে বহিষ্কার করা, দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্যকে অপসারণের দাবীতে আন্দোলন করে আসছে শিক্ষার্থীরা।

এ আন্দোলনকে বন্ধ করতেই বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৪৪ ধারা জারি এবং প্রশাসনের মদদে শিক্ষার্থীদের উপর হামলা চালানো হয়। আমরা এই আন্দোলনের সাথে সংহতি জানিয়ে বশেমুরবিপ্রবির ভিসির পদত্যাগ এবং ওই হামলার সাথে জড়িত সকলের বিচার ও শাস্তি দাবি করছি। সেইসাথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রফ্রন্টের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের উপর ছাত্রলীগ ও যুবলীগের হামলার প্রতিবাদ ও দ্রুত বিচার দাবি করছি।

এসময় সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট বাকৃবি শাখার সভাপতি গৌতম কর, সাধারণ সম্পাদক প্রেমানন্দ দাশসহ সংগঠনটির অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

এদিকে শনিবার সন্ধ্যার দিকে বশেমুরবিপ্রবির আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সংসদ। এসময় ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি ধ্রুবজ্যোতি সিংহ বলেন, বশেমুরবিপ্রবির উপাচার্য তার পদের মর্যাদা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের মর্যাদা উভয়ই নষ্ট করেছে। শিক্ষার্থীদের ওপর সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জানাচ্ছি। অবিলম্বে এই উপাচার্যকে অপসারণ করে ক্যাম্পাসের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার আহ্বান জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য, বশেমুরবিপ্রবিতে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবীতে গত ৩ দিন ধরে আন্দোলন করে আসছে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। শনিবার দুপুরের দিকে বহিরাগত সন্ত্রাসীদের দ্বারা ওই আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা নৃশংস হামলা শিকার হয়। এতে প্রায় ২০ জনের মতো আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী গুরতর আহত হয়।

তানিউল করিম জীম/বাকৃবি

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three + eight =