সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অধীনে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর চট্রোগ্রাম ও সিলেট বিভাগের আ লিক কার্যালয় এসব কাজ বাস্থবায়ন করতে মাঠ পর্যায়ে সরজমিনে পরিদর্শন করেছেন

বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় জৈন্তাপুরের রাজবাড়ি

সিলেট জৈন্তাপুর উপজেলার রাজবাড়ি, প্রাচীণ মেগালিথিক পাথর সহ বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় ঐতিহাসিক সকল স্থাপনা সংস্কার ও সংরক্ষণ করে ইউনেস্কোর তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করার উদ্যোগ গ্রহন করা হয়েছে।

সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অধীনে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর চট্রোগ্রাম ও সিলেট বিভাগের আ লিক কার্যালয় এসব কাজ বাস্থবায়ন করতে মাঠ পর্যায়ে সরজমিনে পরিদর্শন করেছেন।

গত ১১ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার বিকাল ৫টায় প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর চট্রোগ্রাম ও সিলেট বিভাগের আ লিক পরিচালক ড. মো: আতাউর রহমানের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল ঐতিহাসিক জৈন্তেশ্বরী বাড়ি ও সারীঘাট পান্থশালা পরিদর্শন করেন।

এসময় উপজেলা নিবার্হী অফিসার নাহিদা পারভীন সহ জৈন্তাপুর প্রেসক্লাবের সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, ৯ ফেব্রুয়ারি প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো: হান্নান মিয়া’র সভাপতিত্বে বিশ্ব ঐতিহ্যের আপডেটিং টেন্টেটিভ লিস্ট বিষয়ক বৈঠকে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

এ বিষয়ে আ লিক পরিচালক ড. মো: আতাউর রহমান বলেন, এই সভায় জৈন্তাপুর উপজেলার ঐতিহাসিক সকল স্থাপনা ইউনেস্কোর তালিকাভূক্ত করতে আলোচনা করা হয়েছে।

তিনি আরোও বলেন, ঐতিহাসিক জৈন্তাপুর রাজবাড়ি ও মেগালিথিক পাথর স্থাপনাগুলো ঐতিহ্যগত গুরুত্ব বিবেচনায় বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ হওয়ার দাবী রাখে। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় জৈন্তাপুর উপজেলার এসব প্রাচীণ পূরাকীর্তি খনন কাজ এবং সংস্কার ও সংরক্ষণ করতে পৃথক একটি প্রকল্প গ্রহন করতে যাচ্ছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নিবার্হী অফিসার নাহিদা পারভীন বলেন, জৈন্তাপুর উপজেলা সদর জুড়ে অনেক ঐতিহাসিক স্থাপনা ছড়িয়ে রয়েছে। এসব প্রাচীণ পূরাকীর্তি সংস্কার ও মেগালিথিক পাথর সংরক্ষণ করতে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরকে স্থানীয় প্রশাসন থেকে সব রকম সহযোগিতা করা হবে। তিনি ঐতিহাসিক স্থাপনা গুলো সংরক্ষণ ও সংস্কার কাজে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিগনের সহযোগিতা করার আহবান জানান।

নাজমুল ইসলাম/জৈন্তাপুর

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 + 19 =