বর্বরতার প্রতিবাদে রাবিতে বিক্ষোভ 2

বর্বরতার প্রতিবাদে রাবিতে বিক্ষোভ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ বিভাগের চার শিক্ষার্থীকে মারধর ও পূর্ব থেকে চলমান স্থানীয়দের বর্বরতার বিরুদ্ধে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে আইবিএ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

মারধরের শিকার শিক্ষার্থীরা হলেন- আইবিএ এর প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী ফারহান তানভির শোভন, তাসলিমা তানহা শান্তা, তামান্না তারিন প্রাপ্তি, শিহাব আল কুরাইশ। মারধরের ঘটনায় আশিকুর রহমান নামে স্থানীয় এক হামলাকারীকে মতিহার পুলিশ ধরে রেখেছে এবং বাকিদের ধরার চেচেষ্টা চলছে বলে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান জানিয়েছেন।

সোমবার সাড়ে ১১ টায় শুরু হওয়া প্রতিবাদ সমাবেশে শিক্ষার্থীরা প্রশাসনের উদ্দেশ্য বলেন, বাংলাদেশের কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থানীয়দের প্রভাব নেই। অথচ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মত ক্যাম্পাসে মারধর, ল্যাপটপ কেড়ে নেওয়া, ছিনতাই এমনকি হত্যার ঘটনা ঘটাচ্ছে স্থানীয়রা। আমরা ন্যায় বিচার চাই এবং এসব স্থানীয় নরপশুদের আমরা দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই ।

তারা আরো বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে আমাদের কোন নিরাপত্তা নেই। ফলে অনেক শিক্ষার্থী স্থানীয়দের কাছে নির্যাতিত হয়ে থাকে। আমরা এখানে এসেছি লেখাপড়া করতে নির্যাতিত হওয়ার জন্যে নয়। আমাদের দেখভাল করার দায়িত্ব প্রশাসনের কিন্তু তারা নির্বিকার।

মারধরের শিকার শোভন বলেন, রাত ১১টার দিকে বিনোদপুর বাসস্ট্যান্ডে আমাদের দুই বান্ধবী কে ঢাকার বাসে ওঠে দেয়ার জন্য কাউন্টারের পাশে অবস্থান করছিলাম। এসময় নেশাগ্রস্থ অবস্থায় স্থানীয় কিছু ছেলে আমাদের সাথে থাকা বান্ধবীদের নিয়ে বাজে ভাষায় কথা বলতে থাকে। একপর্যায়ে আমরা কয়েকজন প্রতিবাদ করতে গেলে তারা আমাদের সহ মেয়েদের গায়ে বেধড়ক চড়-থাপ্পর ও কিল-ঘুষি দিতে থাকে। এরপর আশেপাশে থাকা কয়েকজন লোক এগিয়ে আসলে তারা পালিয়ে যায়।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four + 11 =