প্যারাসিটামল ট্যাবলেটও নেই মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে! 2

প্যারাসিটামল ট্যাবলেটও নেই মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে!

হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলার ৫০ শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ওষুধ সংকট তীব্র আকার ধারণ করেছে। এতে করে গ্রামাঞ্চল থেকে আগত লোকজন সরকারি ওষুধ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

অভিযোগ উঠেছে, এ হাসপাতালে প্যারাসিটামল ট্যাবলেটেরও সরাবরাহ নেই। এতে করে সাধারণ রোগীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

জানা গেছে, ওষুধ অধিদপ্তর জেলা না উপজেলা পর্যায়ে ওষুধ সরবরাহ হবে এ সিদ্ধান্তহীনতার কারণে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩ মাস যাবত ওষুধ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। যে কারণে প্যারাসিটামল, কলেরা স্যালাইনসহ জীবন রক্ষাকারী ওষুধ একেবারেই নেই। এ ছাড়া, দু-একটি গ্রুপের ওষুধ থাকলেও তা খুব সীমিত।

মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বুধবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হাসপাতালে আগত আউটডোর ইনডোরের রোগীদের দু-একটি ওষুধ ছাড়া বাকি সবধরনের সরকারি ওষুধ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কর্তব্যরত একজন চিকিৎসক জানান, হাসপাতাল থেকে জানানো হয়েছে কোনো ধরনের ওষুধ ব্যবস্থাপত্রে লেখা যাবে না। কারণ ওষুধ নেই। এ জন্য ডাক্তাররা ব্যবস্থাপত্রে ওষুধ লিখে বাইরে থেকে ওষুধ সংগ্রহের পরামর্শ দিচ্ছেন।

হাসপতালের ফার্মাসিস্ট মালেক মিয়া জানান, জরুরি প্রয়োজনীয় ওষুধগুলো নেই। এর মধ্য রয়েছে প্যারাসিটামল, ভিটামিন বি কমপ্লেক্সে, মেট্রোনিডাজল, কলেরা স্যালাইন ইত্যাদি।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা এইচ এম ইশতিয়াক মামুন জানান, প্রতিদিন এ হাসপাতালে আউটডোর, ইনডোরে ৬-৭ শ রোগী চিকিৎসা নিতে আসে। কিন্তু তিন মাস যাবৎ হাসপাতালে ওষুধ সরবরাহ নেই। এতে করে স্টক শেষ হয়ে গেছে। এ অবস্থায় রোগীদের সরকারি ওষুধ দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। ওষুধ অধিদপ্তর কর্তৃক জেলা না উপজেলা পর্যায়ে ওষুধ সরবরাহ হবে এ সিদ্ধান্তহীনতার কারণে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩ মাস যাবৎ ওষুধ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে বলে জানান তিনি।

হবিগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ওষুধ অধিদপ্তরের নীতিগত সিদ্ধান্ত না হওয়ায় এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। তবে, খুব দ্রুত উদ্ভুত সংকট নিরসন হবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × one =