দীপিকা পাড়ুকোনের মনের অসুখ 2

দীপিকা পাড়ুকোনের মনের অসুখ

দীপিকা পাড়ুকোন, বেশ কয়েক বছর ধরেই বলিউডের ১ নম্বর নায়িকা। যে ছবি করছেন, সেটাই বক্স অফিসে সুপারহিট। সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পেয়েছেন। বিয়ে করেছেন বলিউডের আরেক তারকা রণবীর সিংকে। ‘টাইম’ সাময়িকী তাঁকে গত বছর বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী ১০০ ব্যক্তিত্বের তালিকায় রেখেছে।

বাইরে থেকে সেই দীপিকাকে যতই শক্তপোক্ত লাগুক না কেন, একসময় মানসিক রোগে ভুগছিলেন তিনি। শুধু তা-ই নয়, নিজের অতীতের এসব কথা বলতে গিয়ে একাধিক অনুষ্ঠানে কেঁদে ফেলেছিলেন দীপিকা পাড়ুকোন। দর্শকদের জানিয়েছেন বিষণ্নতা জয়ের গল্পও।

মানসিক অবসাদ বিষয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে কথা বলতে গিয়ে দীপিকা বলেন, ‘কয়েক বছর আগে আমার সঙ্গে দেখা করতে আমার বাড়ির লোকজন এসেছিল। তারা চলে যাওয়ার সময় আমি একা আমার ঘরে বসে ছিলাম। আমাকে মা বারবার জিজ্ঞেস করেছিল, কিছু হয়েছে? আমি মাকে বলতে পারিনি। শেষমেশ নিজেকে আটকাতে পারিনি। কেঁদে ফেলেছিলাম। জানিয়েছিলাম আমার মানসিক সমস্যার কথা!’

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের ইয়ুথ এংজাইটি সেন্টার আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে দীপিকা পাড়ুকোন বলেছেন নিজের বিষণ্নতা জয়ের গল্প। দীপিকা জানান, তিনি এখন ভালো আছেন। এ সময় বিষণ্নতা থেকে মুক্তি পাওয়ার মূলমন্ত্র শিখিয়ে দেন তিনি।

দীপিকা বলেন, ‘ধৈর্য ধরার বিকল্প নেই। ধৈর্য ধরে বিশ্বাস করতে হবে যে সব ঠিক হয়ে যাবে। দীপিকা এ সময় সুপারম্যানের উক্তি টানেন। বলেন, যখন তুমি সবকিছুর ভেতর থেকে আশাকে বেছে নেবে, তখন সবকিছুই সম্ভব।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × three =