জিতেননি তবুও বিশেষ কমিটিতে মৌসুমী! 2

জিতেননি তবুও বিশেষ কমিটিতে মৌসুমী!

‘মৌসুমী কথা দিয়েছিলেন, যদি সে জিতে তবে আমাকে সঙ্গে নিয়েই সমিতির কাজ চালিয়ে যাবে। আর আমিও কথা দিয়েছিলাম, যদি আমি জিতে যাই তবে ওকে সাথে নিয়েই কাজ করবো। কারণ আমারা দুজনই শিল্পী ও একে অপরের ভালো বন্ধু। মৌসুমিকে বিশেষ কমিটিতে রেখে তাকে সঙ্গে নিয়ে এগিয়ে যাবে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি’, জয়ের পর প্রতিক্রয়ায় এমনটাই বললেন পর্দার খলনায়ক ও বাস্তবের নায়ক মিশা সওদাগর।

এবারের নির্বাচনে মিশা সওদাগর-জায়েদ খান প্যানেল করে নির্বাচন করেন। অন্যদিকে মৌসুমী স্বতন্ত্র হিসেবে সভাপতি পদে দাঁড়ান। আশা জাগালেও শেষ পর্যন্ত মিশার কাছে বিপুল ব্যবধানে হেরে যান মৌসুমী।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক ২০১৯-২০২১ মেয়াদের দ্বিবার্ষিক নির্বাচনে টানা দ্বিতীয়বারের মতো সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান নির্বাচিত হয়েছেন। ভোট গণনা শেষে শুক্রবার দিনগত রাত দুই টার দিকে নির্বাচন কমিটির প্রধান ইলিয়াস কাঞ্চন আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণা করেন।

১৮টি পদের সবকটিতে মিশা-জায়েদ প্যানেলের সদস্যরা বিজয়ী হন। শুক্রবারের এই নির্বাচনে ভোট পড়ে ৩৮৬টি, মোট ভোটার সংখ্যা ৪৪৯টি। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (বিএফডিসি) শিল্পী সমিতির কার্যালয়ে শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে শুরু হয় ভোটগ্রহণ, চলে বিকেল ৫টা ১০ মিনিট পর্যন্ত।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × 3 =