উত্তর প্রদেশে বিদেশিদের চিহ্নিত করার নির্দেশ 2

উত্তর প্রদেশে বিদেশিদের চিহ্নিত করার নির্দেশ

ভারতের উত্তরপ্রদেশে বসবাসকারী বাংলাদেশি ও অন্যান্য বিদেশিদের চিহ্নিত করতে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আসামের পর এবার কি ঘুরপথে এনআরসি চালু হতে যাচ্ছে উত্তরপ্রদেশেও?

সে রাজ্যের পুলিশের কাছে আসা একটি সাম্প্রতিক নির্দেশ কিন্তু সেরকই ইঙ্গিত করছে। বিদেশিদের চিহ্নিত করে তাদের দেশে ফেরত পাঠাতেও বলা হয়েছে পুলিশকে। শিগগিরই এর প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে বলে উত্তর প্রদেশের পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে।

উত্তরপ্রদেশ পুলিশের প্রধান ওপি সিং এটিকে অত্য়ন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ বলে উল্লেখ করলেও একে, এনআরসি বলতে নারাজ। রাজ্যের নিরাপত্তার খাতিরেই একে পুলিশের স্বাভাবিক দায়িত্বের মধ্যে পড়েছে বলে জানিয়েছেন উত্তরপ্রদেশ পুলিশের প্রধান।

বাংলাদেশি ও অন্য বিদেশিদের কাগজপত্র খতিয়ে দেখে তাদের চিহ্নিত করতে হবে পুলিশকে। এদের আঙুলের ছাপও নিয়ে রাখা হবে। বিশেষ করে শ্রমিকের কাজ করতে অন্য দেশ থেকে আসা মানুষদের পরিচয়পত্র খতিয়ে দেখতে নির্মাণ কারখানাগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেছেন, উত্তরপ্রদেশে বহু বছর ধরেই এনআরসি হচ্ছে। বাংলাদেশ বা অন্য কোনও দেশের কেউ এখানে এসে বেআইনিভাবে থাকতে শুরু করলে রেহাই পাবে না। বৈধ কাগজপত্র দেখতে চাওয়া হবে, বৈধ কাগজ জমা দিতে না পারলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে, দাবি উত্তরপ্রদেশ পুলিসের ডিজি ওপি সিংয়ের।

তিনি জানিয়েছেন, এনআরসি চালু রয়েছে বহু বছর ধরে। প্রতি বছর নির্ধারিত সময়ে অনুপ্রবেশকারীদের ধরপাকড়ের প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যায়। ওপি সিং আরও বলেছেন, সামনেই উৎসবের মরশুম, সতর্ক থাকতে হবে। অনুপ্রবেশকারীরা এদেশে এসে বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজ শুরু করে।

সেইসব অপরাধমূলক কার্যকলাপ দমন করতে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। গত মাসেই উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ আসামে এনআরসি প্রক্রিয়ার প্রশংসা করেন এবং প্রয়োজনে উত্তরপ্রদেশেও যে তিনি এনআরসি করাবেন, সে কথাও জানিয়ে দেন।

-এস

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seven + two =