আ’লীগের শুদ্ধি অভিযান প্রধানমন্ত্রীর সাহসি পদক্ষেপ : পলক 2

আ’লীগের শুদ্ধি অভিযান প্রধানমন্ত্রীর সাহসি পদক্ষেপ : পলক

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের শুদ্ধি অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহম্মেদ পলক বলেছেন, সিদ্ধান্তটি প্রধানমন্ত্রীর সাহসি পদক্ষেপ। দেশের কোটি কোটি মানুষ ও তৃণমূলের ত্যাগী নেতাকর্মীর এ সিদ্ধান্তটি সাধুবাদ জানাচ্ছেন।

রবিবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের সন্মেলন কক্ষে আয়োজিত জেলা আইসিটি কমিটির সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ মন্তব্য করেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের প্রধান সমস্যা ছিল জঙ্গীবাদ মোকাবেলা। এটিতে প্রধানমন্ত্রী সফল হয়েছেন। এখন আমাদের সামনে দুটি চ্যালেঞ্জ। একটি মাদক ও অপরটি দূর্নীতি নিমূল করা। সেটি নিয়েই দলের সভানেত্রী শেখ হাসিনা কাজ করছেন। এতে করে দল আরও বেশি শক্তিশালী ও ঐক্যবদ্ধ হবে।’

চুয়াডাঙ্গা জেলাকে সম্ভাবনাময় জেলা হিসাবে উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘খুব শীঘ্রই এ জেলার প্রতিটি ইউনিয়নে দ্রুত গতির ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা নিশ্চিত করা হবে। নির্মাণ করা হবে একটি হাইটেকপার্ক ও শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং সেন্টার।’

তিনি জানান, জেলার প্রতিটি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে গড়ে তোলা হবে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব। একই সাথে শিক্ষার্থীরা যাতে ঘরে বসেই আউট সোসিং এর কাজ করে উর্পাজন করতে পারে সে বিষয়টিও মাথায় রেখে পরিকল্পনা গ্রহণ করা হচ্ছে।

পরিদর্শন কালে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার,পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম ,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) খোন্দকার ফরহাদ হোসেন।

জীবননগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী হাফিজুর রহমান,দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলী মুনসুর বাবু,জীবননগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সিরাজুল ইসলাম,জীবননগর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আঃ সালাম ঈশা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েসা সুলতানা লাকী।জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ গনি মিয়া, উথলী ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আযাদ, মনোহরপুর ইউপি চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন খাঁন,হাসাদহ ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম বিশ্বাস, বাঁকা ইউপি চেয়ারম্যান আঃ কাদের প্রধানসহ সরকারি দপ্তরের বিভিন্ন কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধি প্রমূখ।

-এসপি

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 − 2 =