মার্কিন দূতাবাস

আবারও মার্কিন দূতাবাসকে লক্ষ্য করে রকেট হামলা

বাগদাদের গ্রিন জোনে যুক্তরাষ্ট্রসহ বিদেশি দূতাবাসগুলোকে লক্ষ্য করে আবার রকেট হামলা হয়েছে। বুধবার বিকালের ওই হামলায় কেঁপে উঠে বাগদাদ।

তবে এতে কোনো ক্ষয়ক্ষতির খব পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সিএনএন।

মার্কিন বিমান ঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলার ২৪ ঘণ্টা না পেরোতেই এ রকেট হামলা হলো। এর আগেও মাকির্ন দূতাবাসের কাছে দুদফা রকেট হামলা চালানো হয়। এতে ৬ জন আহত হয়।

এএফপির বরাত দিয়ে এনডিটিভি জানিয়েছে, রকেট হামলায় বিকট বিস্ফোরণের শব্দে কেঁপে ওঠে বাগদাদ। সঙ্গে সঙ্গে গ্রিন জোনের সতর্কতামূলক সাইরেন বেজে ওঠে। তাৎক্ষণিক এই হামলায় হতাহতের বিষয়ে অথবা কারা এই হামলা চালিয়েছে তা এখনও জানা যায়নি।

মঙ্গলবার রাতে ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের ঘাঁটিতে তেহরানের ব্যালিস্টিক মিসাইল হামলার প্রায় ২৪ ঘণ্টা পরই এই হামলার ঘটনা ঘটলো।

ওই হামলায় হামলায় ৮০ জন মার্কিন সেনা নিহত হয়েছে বলে ইরান দাবি করেছে করলেও আমেরিকা এই দাবি নাকচ করে দিয়েছে।

বুধবার এক বিবৃতিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানান, এই হামলায় তেমন কোনো সেনা সদস্যও নিহত হয়নি। তবে সামান্য ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

জানা গেছে, ইরাকে দুটি মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে ইরান ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে। এতে ৮০ মার্কিন সেনা নিহত ও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে সামরিক সরঞ্জামের। ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলের আইন আল আসাদ ও কুর্দিস্তানের ইরবিল ঘাঁটিতে ২২টি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়।

ইরানের রাষ্ট্রীয় টিভি চ্যানেলে দাবি করা হয়- মঙ্গলবার শেষ রাতে হামলার মাধ্যমে কাসেম সোলেমানি হত্যার জবাব দেয়া হয়েছে। তবে এরপর ইরান আর যুদ্ধ চায় না। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র যদি হামলা করে তবে পাল্টা জবাব দেবে। সরাসরি যুক্তরাষ্ট্রের অভ্যন্তরে হামলা চালিয়ে এর জবাব দেবে ইরান।

এদিকে মধ্যপ্রাচ্য থেকে মার্কিন সেনাদের বিতাড়িত করা হবে বলে যুক্তরাষ্ট্রকে হুশিয়ার করে দিয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × three =